খেলাধুলাশিক্ষা

বক্সিং ডে কি ?

সুপ্রিয় পাঠক আজকে আমাদের আলোচনার প্রধান বিষয়বস্তু হচ্ছে বক্সিং ডে কি? আপনারা হয়তো অনেকেই জীবনে একবার হলেও বক্সিং ডে নামটি শুনেছেন। কিন্তু বক্সিং ডে সম্পর্কে আপনি কিছুই জানেন না। তাই আমরা আজকে আলোচনা করব বক্সিং ডে সম্পর্কে।

আমরা এর সাথে আরো আলোচনা করব বক্সিং ডে টেস্ট কি? এবং বক্সিং ডে ম্যাচ সম্পর্কে। আলোচনাটি ধৈর্য সহকারে পড়ুন আশা করি বক্সিং ডে সম্পর্কে আপনারা সকল কিছু জানতে পারবেন।

বক্সিং ডে শব্দের উৎপত্তি

বক্সিং বা মুষ্টি যুদ্ধ নামক খেলার সাথে বক্সিং ডে এর কোন সম্পর্ক নেই .যেহেতু বড়দিনের পর দিন বক্সিং ডে উদযাপন করা হয়। সেহেতু খ্রিস্টান ধর্মালম্বীরা বড়দিনে যেসব উপহার বক্সের মাধ্যমে অন্য আরেকজনকে দিয়ে থাকে সেই বক্স থেকে আদতে বক্সিং ডে শব্দের উৎপত্তি।

বক্সিং ডে নামের উৎপত্তি হয় উনিশ শতকের দিকে অর্থাৎ রানী ভিক্টোরিয়ার শাসন কালে। তখন ব্রিটেনএ একে অন্যকে উপহার দেওয়ার প্রচলন ছিলো।

বড়দিনে অর্থাৎ ২৫ডিসেম্বর নিজেদের মধ্যে উপহার দেওয়া নেওয়া করলেও বড়দিনের পরের দিন অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর অথবা ২৬ ডিসেম্বর যদি ছুটির দিন থাকে তাহলে তার পরবর্তী কর্ম দিবসে অর্থাৎ ২৭ ডিসেম্বর গরিব দুঃখীদের অথবা অফিসের সহকর্মীদের উপহার দেওয়া হতো।

অর্থাৎ এই দিন উচ্চবিত্তের মানুষেরা নিম্ন নিম্নবিত্ত মানুষদের অথবা অফিসের সহকর্মীদের বক্সের মাধ্যমে উপহার সামগ্রী দিতেন। তাদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান চার্চেও বক্সের মাধ্যমে গরিবদের জন্য উপহার সামগ্রী রাখা হতো।

সেই উপহার গুলো বক্সের মাধ্যমে দেওয়া হত। তখন থেকেই ব্রিটেনে এই উপহার বক্সের মাধ্যমে আদান-প্রদানের কারণে একে বক্সিং ডে বলা হতো।

বক্সিং ডে কবে?

বড়দিনের অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বরের পরের দিন অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর কে বক্সিং ডে হিসেবে উদযাপন করা হয়।

বক্সিং ডে র উৎপত্তি হয় বৃটেনের রানী ভিক্টোরিয়ার শাসনামল থেকেই তখন বড়দিন অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন পালন করা হতো। এবং নিজে নিজেদের মধ্যে উপহার আদান-প্রদান করা হতো।

বড়দিনের পরের দিন অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর অথবা ২৬ ডিসেম্বর যদি ছুটির দিন থাকে তাহলে তার পরবর্তী কর্ম দিবসে অর্থাৎ ২৭ ডিসেম্বর গরিব দুঃখীদের অথবা অফিসের সহকর্মীদের উপহার দেওয়া হতো।

পরবর্তীতে এই সাপ্তাহিক ছুটির ঝামেলা রাতে ২৬ ডিসেম্বর কে বক্সিং ডে হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশ সমূহে সাধারণত বক্সিং ডে পালন করা হয়ে থাকে। এই দিনকে তারা সরকারি ছুটির দিন হিসেবে পালন করে থাকে। কোনো কোনো দেশে দিনটি শনিবার কিংবা রবিবার হলে পরের দিন অর্থাৎ সোমবার এই দিনটি পালন করা হয়ে থাকে।

এই দিন সরকারি ছুটির দিন হিসেবে পালন করায় অফিস আদালত স্কুল কলেজ দোকানপাট সবকিছুই বন্ধ থাকে।

কিন্তু বলে রাখা ভালো আয়ারল্যান্ডস্পেনে এই গুরুত্বপূর্ণ দিনটিকে বলা হয় সেন্ট স্টিফিনেস ডে।

বক্সিং ডে টেস্ট কি?

ব্রিটেনে বক্সিং ডে উদযাপন করা হলেও ক্রিকেটে বক্সিং ডের জন্ম মূলত অস্ট্রেলিয়াতে। ১৮৬৫ সালের দিকে অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া টুর্নামেন্টে ভিক্টোরিয়া ও নিউ ওয়েলসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে প্রথম বক্সিং ডে টেস্টের যাত্রা শুরু হয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এর চল আরো পরে শুরু হয়। ১৯৫০-৫১ সালের মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অ্যাশেজ এর মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রথম বক্সিং ডে টেস্টের জন্ম হয়।

এরপর ১৯৫৩ থেকে ১৯৬৭ পর্যন্ত বক্সিং ডে টেস্ট বন্ধ থাকে। এরপর ১৯৭৫ সালে ওয়েস্টইন্ডিজ এর সাথে বক্সিং ডে টেস্ট ম্যাচের প্রথম দিন স্টেডিয়ামে উপস্থিত হয় ৮৫ হাজার দর্শক যা ছিল রেকর্ড। এর আগে কোন টেস্ট ম্যাচে এত দর্শক ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে আসেনি। মূলত ছুটির দিনটা কাজে লাগাতে দর্শকরা মাঠে আসে। আর এই দিকে চোখ পড়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার।

তারা এই দিনকে কাজে লাগাতে একটি পদক্ষেপ চিন্তা ভৱনা শুরু করে। তারা সরকারি ছুটির দিনের কথা চিন্তা করে দুইয়ে দুইয়ে চার মেলাতে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডের সাথে চুক্তি করে। এরপর প্রতিবছর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ২৬ ডিসেম্বর বক্সিং ডে টেষ্টের আয়োজন করে।

অস্ট্রেলিয়ার মতো অন্যান্য কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশগুলোতেও মাঝে মাঝে বক্স এ টেস্ট হতে দেখা যায়।

অস্ট্রেলিয়ার মত সাউথ আফ্রিকা ও নিয়মিত বক্সিং ডে টেস্ট থাকে।

এবারের বক্সিং ডে টেস্ট

প্রতিবারের মতো এবারও বক্সিং ডেট হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ায় মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আজ সাব ডিসেম্বর কি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ। এটাই এই বছরের প্রথম বক্সিং ডে টেস্ট ম্যাচ।
এর পর এই বছরের দ্বিতীয় বক্সিং ডে টেস্ট ম্যাচ এ সাউথ আফ্রিকার সেঞ্চুরিয়ানের আজ দুপুরে শুরু হয়ে গেছে সাউথ আফ্রিকা বনাম ভারতের মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট।

এবারের বক্সিং ডে ফুটবল ম্যাচ

ক্রিকেটের মত ফুটবলেও বক্সিং ডে ফুটবল ম্যাচ ঘটা করে আয়োজন করা হয়। বিশেষ করে ইংল্যান্ডে এর প্রচলন সাম্প্রতিক সময়ে অনেক বেশি। ইউরোপের অন্যান্য লীগের খেলা এই দিন বন্ধ থাকলেও বক্সিং ডে ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ।

প্রতিবারের মতো ২৬ ডিসেম্বর বক্সিং ডে ফুটবল ম্যাচে লিভারপুল ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এর মতো বড় দল গুলো নিজ নিজ খেলায় মাঠে নামবে।

শেষ কথা

আশা করি বক্সিং ডে কি? এ সম্পর্কে সকল উত্তর জানতে পেরেছেন বক্সিং ডে সম্পর্কে আপনাদের আরো কিছু প্রশ্ন থাকলে আমাকে কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *