আজকের খবর

ধর্ষণের মামলায় আট বছরের কারাদণ্ড লামিচানের

ধর্ষণের মামলায় আট বছরের কারাদণ্ড লামিচানের: আজ বুধবার ধর্ষণের একটি মামলায় নেপালের লেগ স্পিনার সন্দীপ লামিচানেকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন নেপালের একটি আদালত। এর পাশাপাশি তাঁকে ৩ লাখ নেপালি রুপি জরিমানা ও তার সঙ্গে ভুক্তভোগীকে আরো ২ লাখ নেপালি রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

লামিচানে নেপাল ক্রিকেটের প্রথম সুপারস্টার। তার লেগ স্পিন গুর্নিতে বোকা বনেছে বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যান। এ লেগ স্পিনারের দুর্দান্ত বোলিংয়ে এবার প্রথম বারের মতো এশিয়া কাপ খেলে হিমালয়ের দেশটি।

কেন আট বছরের কারাদণ্ড লামিচানের ?

২০২২ সালে লামিচানের বিরুদ্ধে নেপালের কাঠমান্ডুরএকটি বিলাস বহুল হোটেলে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয় । মামলার সময় লামিচানে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) খেলতে ওয়েস্টইন্ডিজ এ ছিলেন। টুর্নামেন্ট শেষে দেশে ফিরলে তাকে নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে গত বছরের ৬ অক্টোবর তাঁকে গ্রেপ্তার করে নেপাল পুলিশ ।

কাঠমান্ডু জেলা অ্যাটর্নি লামিচানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রে ভুক্তভোগীকে শারীরিক ও মানসিকভাবে অত্যাচার করার জন্য তাঁকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। অভিযোগপত্র গঠনের পর লামিচানের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও সম্পত্তি জব্দ কাঠমন্ডু পুলিশ ।তবে এরপর তিনি জামিনে মুক্ত পানএবং এশিয়া কাপে প্রতিনিধিত্ব করেন দেশের ।

গত ডিসেম্বরে এ মামলায় লামিচানে ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হন। তবে এর আগে লামিচানেকে খেলার সুযোগ দেওয়ার জন্য ধারাবাহিকভাবে শুনানিতে বিলম্ব করা হয়েছিল। অবশেষে বুধবার এ ধর্ষণ মামলার রায় ঘোষণা হয় ।

নেপালের কাঠমান্ডুর জেলা আদালতের কর্মকর্তা রামু শর্মা বার্তা সংস্থা গণমাধ্মে কর্মীদের বলেন, ‘আদালত লামিচানেকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।’

কিন্তু লামিচানে এ মামলায় গ্রেপ্তার ছিলেন না, রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না বলে জানা গেছে।
তাঁর আইনজীবী সরোজ ঘিমিরেগণমাধ্মে কর্মীদের বলেছেন, লামিচানে এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।’

লামিচানে তাঁর বিরুদ্ধে আনা ধর্ষণ মামলার অভিযোগ বারবার অস্বীকার করে এসেছেন। জনগণও তাকে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে । তবে নেপালের হয়ে তাঁর খেলা চালিয়ে যাওয়া অনেককে মেনে নিতে পারেন নি । প্রায় বছরখানিককের বেশি সময় ধরে বারবার পিছিয়ে যাওয়ার পর শেষমেষ লামিচানের বিরুদ্ধে এই মামলার রায় ঘোষণা করা হলো।

২০২২ সালের ২১ই আগস্ট কাঠমান্ডুর জেলা অ্যাটর্নি অফিস লামিচানের বিরুদ্ধে ১৭ বছর বয়সী এক মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হয় । একই বছরের ৬ সেপ্টেম্বর লামিচানের বিরুদ্ধে গুয়াশালা মেট্রোপলিটন পুলিশ সার্কেলে মামলা করেছিল ভুক্তভোগী মেয়েটি।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে লামিচানেকে নেপাল জাতীয় দলের অধিনায়ক হন । গত বছর সেপ্টেম্বরে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠার পর তাঁকে অধিনায়কত্ব থেকে বহিস্কার করা হয় । পরে তাকে পুলিশ গ্রেপ্তারও করে । কিন্তু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব নেপাল (সিএন) নিজেদের প্রধান লেগ স্পিনার হিসেবে তাঁকে দেশের বাইরে খেলার সুযোগ করে দিয়েছিল।

আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ লিগ টুর ম্যাচে লামিচানের বিরুদ্ধে থাকা অভিযোগের কারণে স্কটল্যান্ডের ক্রিকেটাররা তাঁর সঙ্গে হাত না মিলিয়ে নীরব প্রতিবাদ করেছেন ।

ফেরার পর মাঠে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন নিজেকে নির্দোষ দাবি করা এই লেগ স্পিনার । মাঠে ফিরেই ১৯ ওয়ানডে ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৪২ উইকেট। ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্রুততম ১০০ উইকেট নেওয়ার রেকর্ডও (৪২ ম্যাচ) ভাঙেন তিনি। নেপালকে এশিয়া কাপে নিতেও বড় ভূমিকা রাখেন এবং ছেলেদের এসিসি প্রিমিয়ার কাপে ৩ ইনিংসে করে ৫৫ রান ও ৪টি ইনিংসে বোলিং করে ১৩ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন লামিচানে

আরো পড়ুন:- বিজয়ী হয়ে চাপ অনুভব করছেন ব্যারিস্টার সুমন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *